শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯

বারভিডার বার্ষিক সাধারণ সভা ২০২২ অনুষ্ঠিতরিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানিতে স্থবিরতা মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ পদক্ষেপ গ্রহণের আহবান


Published: 2022-12-25 12:41:52 BdST, Updated: 2023-02-04 12:47:29 BdST

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইম্পোর্টার্স অ্যান্ড ডিলার্সঅ্যাসোসিয়েশনের (বারভিডা) বার্ষিক সাধারণ সভা ২০২২গত ২২ ডিসেম্বর ২০২২ তারিখে সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। বারভিডা প্রেসিডেন্ট জনাব মোঃ হাবিব উল্লাহ ডন এর সভাপতিত্বে অফিসার্স ক্লাব ঢাকায় অনুষ্ঠিত এ সভায় অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি জেনারেল, ভাইস প্রেসিডেন্টবৃন্দ, প্রাক্তন প্রেসিডেন্টবৃন্দ এবং কার্যনির্বাহী সদস্যবৃন্দসহ প্রায় ৩৭০ সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বারভিডা প্রেসিডেন্ট তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে, বারভিডার বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি সংগঠনের সদস্যবৃন্দের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের পাশাপাশি রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানি খাতের উন্নয়নে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কারণে দেশে মার্কিন ডলারের সংকট, এবং এর ফলে রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানির জন্য শতভাগ এলসি মার্জিন সংরক্ষণ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনার প্রেক্ষিতে এ খাতটি যে স্থবির অবস্থা অতিক্রম করছে সে পরিস্থিতিতে বর্তমান কমিটি সম্ভাব্য করণীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করে যাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। তিনি বর্তমান পরিস্থিতি ধৈর্য্যসহ এবং ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবেলার জন্য সদস্যবৃন্দকে আহবান জানান। এছাড়াও বারভিডা প্রেসিডেন্ট নতুন ও পুরনো গাড়ির শুল্ক বৈষম্য নিরসনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য এনবিআরকে আহবান জানান।

বার্ষিক সাধারণ সভায় অ্যাসোসিয়েশনের সেক্রেটারি জেনারেল জনাব মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম তার উপস্থাপিত ২০২২ সালের প্রতিবেদনে সংগঠনের গত ১ বছরের উল্লেখযোগ্য কার্যক্রমসমূহ তুলে ধরেন। সংগঠনের ট্রেজারার বারভিডার গত ১ বছরের আয়-ব্যয়ের হিসাব উপস্থাপন করেন। এছাড়াও সভায় বারভিডার আগামী অর্থবছরের বার্ষিক বাজেট অনুমোদন করা হয় এবং আগামী অর্থবছরের জন্য অডিটর নিয়োগ করা হয়। সাধারণ সভার উন্মুক্ত আলোচনা পর্বে অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সদস্যবৃন্দ দেশের রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানি খাত এবং সংগঠনের স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। বারভিডাকে আরও গতিশীল, কার্যকর এবং যুগোপযোগী একটি বাণিজ্য সংগঠন হিসেবে গড়ে তুলতে তারা সর্বাত্মক সহযোগিতা ও সমর্থন দেন। উল্লেখ্য যে, বারভিডা দেশের রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানি ও বিপণন খাতের জাতীয়ভিত্তিক বাণিজ্য সংগঠন। সংগঠনটি গত তিন দশকেরও বেশী সময় ধরে দেশের পরিবহন খাতে গাড়ি সরবরাহে প্রায় ৮৫ শতাংশ অবদান রেখে আসছে।

  • বারভিডার সদস্য সংখ্যাবর্তমানে ৯ শতাধিক
  • রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানি ও বিপণন খাতে দেশে স্থানীয় বিনিয়োগ কয়েক হাজার কোটি টাকা।
  • বারভিডার সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলো প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে দেশে লক্ষাধিক জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছে। ব্যাকওয়ার্ড লিংকেজ প্রতিষ্ঠানগুলোতেও বিপুল কর্মসংস্থান হয়েছে।
  • বারভিডা সরকারকে বছরে কয়েক হাজার কোটি টাকা রাজস্ব প্রদান করে থাকে।
  • বারভিডা সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলি ভ্যাট, আয়কর ও রোড ট্যাক্স প্রদানের মাধ্যমে দেশে একটি ব্যাপকভিত্তিক কর ব্যবস্থা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অবদান রাখছে।
  • রিকন্ডিশন্ড মোটরযান ব্যবসাকে নির্ভর করে দেশের বিভিন্ন ব্যাংক, লিজিং কোম্পানি ও বীমা কোম্পানিগুলোর কার্যক্রম সম্প্রসারিত হয়েছে।

মোংলা বন্দর প্রায় ৬০ বছর অকার্যকর অবস্থায় পড়ে থাকার পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আহবানে বারভিডা সদস্যবৃন্দ ২০০৯ সাল থেকে এ বন্দরের মাধ্যমে গাড়ি আমদানির সূচনা করে বন্দরটিকে সচল, কার্যকর ও সরকারের রাজস্ব আয়ের একটি উল্লেখযোগ্য উৎসে পরিনত করেছেন। বর্তমান সরকার বারভিডার এ অবদানের যথাযথ স্বীকৃতিও দিয়েছে।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।