রবিবার, ২ অক্টোবার, ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯

সর্বপ্রথম ডিজিটাল কালেকশন সল্যুশন নির্মাণ করলো স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-লংকাবাংলা


Published: 2022-09-18 11:25:24 BdST, Updated: 2022-10-02 21:59:12 BdST

নিজস্ব প্রতিবেদক : অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ইন্টারফেস বা এপিআই ইন্টিগ্রেশন-এর সাহায্যে গ্রাহকদের জন্য রিয়েল টাইম রিকন্সিলিয়েশনসহ দেশের প্রথম ডিজিটাল কালেকশন সল্যুশন চালু করেছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ এবং লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ লিমিটেড (এলবিএসএল)। এই নতুন ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীরা সুবিধাভোগী মালিকদের (বিও) অ্যাকাউন্টে সহজেই ফান্ড ট্রান্সফার করতে পারবেন। একইসাথে ব্যবহারকারীরা ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ-এ (সিএসই) স্টক ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবেন। এপিআই সংযোগ সম্বলিত কালেকশন সল্যুশন হিসেবে এই ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে, লংকাবাংলা এখন গ্রাহকদের পছন্দের পেমেন্ট পদ্ধতির বাইরেও তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে এবং অবিলম্বে স্বয়ংক্রিয়ভাবে রিকন্সিলিয়েশন প্রক্রিয়া সম্পন্নে উল্লেখিত ডেটা ব্যবহার করতে পারবে। এই রিয়েল-টাইম সল্যুশন ব্যবহারে কাজ আরও গতিশীল হবে। পাশাপাশি এটি উন্নত ডেটা নিরাপত্তা প্রদান এবং ক্লায়েন্ট সার্ভিসিং টার্ন-অ্যারাউন্ড টাইম ও অপারেশনাল ঝুঁকি কমিয়ে লংকাবাংলা’র দক্ষতা ও কার্যকারিতা আরও বৃদ্ধি করবে।

স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বাংলাদেশ-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং হেড অব ক্লায়েন্ট কভারেজ, সিসিআইবি এনামুল হক বলেন, “ব্রোকারেজ শিল্পকে ডিজিটালাইজ করলে স্টক ট্রেডিং আরও সহজ হবে এবং বিনিয়োগকারীদের মূল্যবান সময় সাশ্রয়ের মাধ্যমে দেশের পুঁজিবাজারের প্রবৃদ্ধি সাধন হবে। এপিআই-এর সাথে ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্টের মতো সল্যুশনগুলো ব্রোকারেজ হাউজ, আর্থিক ও কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানগুলোয় স্বয়ংক্রিয় রিয়েল-টাইম রিকন্সিলিয়েশনসহ অন্যান্য কালেকশন সল্যুশনগুলো ডিজিটালাইজ করে তোলে। লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ দেশের পুঁজিবাজারে মধ্যস্ততাকারী হিসেবে আগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে এবং তাদের অংশীদারি হিসেবে পেয়ে আমরা করতে গর্বিত।”

লংকাবাংলা সিকিউরিটিজ লিমিটেড-এর (এলবিএসএল) সিইও এবং ডিরেক্টর খন্দকার সাফাত রেজা বলেন, “এলবিএসএল পুঁজিবাজারের মধ্যস্থতাকারী হিসেবে শুরু থেকে কাজ করছে। গ্রাহকদের সেরামানের সেবা ও বিনিয়োগ অভিজ্ঞতা প্রদানে আমরা বরাবরই উদ্ভাবনী এবং মূল্য-সংযোজনকারী প্রযুক্তি ও পরিষেবা ব্যবহারে আগ্রহী। এই এন্ড-টু-এন্ড সল্যুশন বিনিয়োগকারীর থেকে ডিজিটালি কালেকশন সম্পন্ন করবে এবং তাদের তাৎক্ষণিক নোটিফিকেশন প্রেরণ করবে।” তিনি স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-কে সাথে নিয়ে বাংলাদেশের ব্যাংকিং শিল্পে সর্বপ্রথম ডিজিটাল কালেকশন সল্যুশন প্রদান করতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেন। তিনি জানান, উভয় প্রতিষ্ঠান দেশের প্রথম ডিজিটাল ক্যাশ ম্যানেজমেন্ট প্রসেস সফলভাবে বাস্তবায়িত করেছে, যা দেশের পুঁজিবাজারের জন্য একটি নতুন মাইলফলক।

কালেকশন সম্পন্নের জন্য এপিআই ইন্টিগ্রেশন সল্যুশনসহ ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে লংকাবাংলা’র সকল ক্লায়েন্টের জন্য একটি অনন্য ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্ট বরাদ্দ করেছে, যাতে তারা ই-বিইএফটিএন, আরটিজিস, আইবিএফটি’র মতো ডিজিটাল চ্যানেলগুলো ব্যবহার করে নিজ নিজ ব্যাংক থেকে নির্বিঘ্নে পেমেন্ট করতে পারে। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ছাড়াও এই সল্যুশনটি রিয়েল-টাইম ক্যাশ রিসাইক্লার মেশিনের মাধ্যমে নগদ অর্থ প্রদান বা একই ভার্চুয়াল অ্যাকাউন্ট ব্যবহার করে নগদ ও চেকের মাধ্যমে কাউন্টারে পেমেন্ট করা যায়। ব্যাংকিং সংক্রান্ত তথ্যদি স্বয়ংক্রিয়ভাবে লংকাবাংলা’র এন্টারপ্রাইজ রিসোর্স প্ল্যানিং (ইআরপি) সিস্টেমে পাওয়া যায়।

দীর্ঘ ১১৭ বছরের বেশি সময় ধরে বাংলাদেশে নিরবচ্ছিন্ন কার্যক্রম পরিচালনাকারী স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড-ই দেশের একমাত্র বহুজাতিক ব্যাংক। বিদ্যুৎ, জ্বালানি, পরিবহন এবং নগর উন্নয়নে বিনিয়োগ সুবিধা প্রদানের মাধ্যমে দেশের অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখতে ব্যাংকটি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। গত বছর, সকল প্রকার আমদানি-রপ্তানি অর্থায়নের এবং বিদেশী ব্যাংক দ্বারা বিদ্যুৎ উৎপাদনের অর্থায়ন ও এসএমই ঋণ নিশ্চিতে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড বিশেষ ভূমিকা রেখেছে। একইসাথে, রিটেইল ফাইন্যান্সিংয়ে শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে ব্যাংকটি। স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড মহামারী চলাকালেও দেশের সমৃদ্ধির যাত্রায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে এবং ২০২১ সালে ৩০টি আন্তর্জাতিক পুরষ্কার অর্জন করেছে। লংকাবাংলা সিকিউরটিজ লিমিটেড (এলবিএসএল) দেশের পুঁজিবাজার পরিষেবা খাতে অন্যতম মার্কেট লিডার হিসেবে সুপরিচিত। লংকাবাংলা শীর্ষস্থানীয় ব্রোকারেজ পরিষেবা প্রদান করে এবং আধুনিক ট্রেডিং, টপ রেটেড গবেষণামূলক তথ্য ও ক্লায়েন্ট পরিষেবার মাধ্যমে শিল্পে নেতৃত্ব প্রদান করছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।