ডিএসইতে পিই রেশিও কমেছে দশমিক ১০ পয়েন্ট


Published: 2022-06-18 15:29:44 BdST, Updated: 2022-06-27 02:12:23 BdST


নিজস্ব প্রতিবেদক : গত সপ্তাহে শেয়ারবাজারে লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তিনদিনই মূল্যসূচকের পতন হয়েছে। সপ্তাহজুড়ে যে কয়টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়েছে, কমেছে তার থেকে বেশি। এতে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) সপ্তাহের ব্যবধানে কিছুটা কমেছে।

শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ ঝুঁকি নির্ণয় করা হয় মূল্য আয় অনুপাত দিয়ে। সাধারণত ১০-১৫ পিইকে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ঝুঁকিমুক্ত ধরা হয়। আর কোনো কোম্পানির পিই ১০-এর নিচে চলে গেলে ওই কোম্পানির শেয়ার দাম অবমূল্যায়িত বা বিনিয়োগের জন্য নিরাপদ ধরা হয়।

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত অনেক আগেই ১৫-এর নিচে নেমেছে। এক সপ্তাহ আগে পিই ছিল ১৪ দশমিক ১৫ পয়েন্ট। এখন তা কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ দশমিক শূন্য ৫ পয়েন্ট। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে পিই শূন্য দশমিক ১০ পয়েন্ট কমেছে।

এদিকে চার খাতের পিই এখনো সার্বিক বাজার পিই’র নিচে রয়েছে। এই চার খাতের মধ্যে রয়েছে- ব্যাংক, ওষুধ, বিবিধ এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি। এর মধ্যে ব্যাংক, ওষুধ এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের পিই সপ্তাহের ব্যবধানে কমেছে। আর বিবিধ খাতের পিই কিছুটা বেড়েছে।

আগের মতো সব থেকে কম পিই রয়েছে ব্যাংক খাতের। বর্তমানে এই খাতের পিই রয়েছে ৭ দশমিক ৮০ পয়েন্টে, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ৭ দশমিক ৯০ পয়েন্টে। ১১ দশমিক ৬০ পিই নিয়ে এর পরের স্থানে রয়েছে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত। এক সপ্তাহ আগে এ খাতের পিই ছিল ১১ দশমিক ৭০ পয়েন্ট।

ব্যাংক এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের পিই কমলেও সপ্তাহের ব্যবধানে বিবিধ খাতের পিই বেড়েছে। ১২ দশমিক ১০ পিই নিয়ে সর্বনিম্ন পিই’র তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে খাতটি। এক সপ্তাহ আগে এ খাতের পিই ছিল ১২ পয়েন্টে। সার্বিক বাজারের তুলনায় কম পিই থাকা আরেক খাত ওষুধের পিই ১৩ দশমিক ৫০ পয়েন্ট, যা এক সপ্তাহ আগে ছিল ১৩ দশমিক ৬০ পয়েন্ট।

অপরদিকে সব থেকে বেশি পিই রয়েছে জীবন বিমা খাতের। বর্তমানে এ খাতের পিই দাঁড়িয়েছে ৬৭ দশমিক ৭০ পয়েন্টে। এক সপ্তাহ আগে যা ছিল ৭০ পয়েন্টে। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে এ খাতের পিই কমেছে দুই দশমিক ৩০ পয়েন্ট।

সর্বোচ্চ পিই’র তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে চামড়া খাত। এ খাতের পিই দাঁড়িয়েছে ৫২ দশমিক ৫০ পয়েন্ট, যা আগের সপ্তাহে ছিল ৫৪ দশমিক ১০ পয়েন্ট। ৩৫ দশমিক ১০ পয়েন্ট নিয়ে এ তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে সিরামিক খাত। এক সপ্তাহ আগে এ খাতের পিই ছিল ৩১ দশমিক ৭০ পয়েন্ট।

এছাড়া বাকি খাতগুলোর মধ্যে সাধারণ বিমা খাতের পিই ১৭ দশমিক ৩০ পয়েন্ট থেকে ১৬ দশমিক ৪০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। প্রকৌশল খাতের পিই ২০ পয়েন্ট থেকে ১৯ দশমিক ৯০ পয়েন্ট হয়েছে।

অপরদিকে আইটি খাতের পিই ২৭ পয়েন্টে থেকে ২৬ দশমিক ৩০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। সেবা ও আবাসন খাতের পিই ১৭ দশমিক ৩০ পয়েন্ট থেকে ১৭ দশমিক ৮০ পয়েন্ট হয়েছে। অব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা লিজিং খাতের পিই ২১ দশমিক ২০ পয়েন্ট থেকে ২১ পয়েন্টে নেমেছে। সিমেন্ট খাতের পিই ২৫ দশমিক ৩০ পয়েন্ট থেকে ২৪ দশমিক ৯০ পয়েন্ট হয়েছে। আর খাদ্য খাতের পিই ২৪ দশমিক ৯০ পয়েন্ট থেকে ২৪ দশমিক ৬০ পয়েন্ট হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।