শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯

নিয়মের বেড়াজালে আটকে যায় ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের ঋণ


Published: 2022-11-28 11:43:33 BdST, Updated: 2023-02-04 10:58:33 BdST


নিজস্ব প্রতিবেদক : কুটির, মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের (সিএমএসএমই) জন্য ব্যবসাবান্ধব ঋণ নীতিমালা করার দাবি ওঠেছে। এ খাত সংশ্লিষ্ট বিশ্লেষক ও ব্যবসায়ীরা বলছেন, যখন তারা কোনো ব্যবসার জন্য ঋণের আবেদন করতে যান, তখন তাদের সামনে নানা আইন-কানুন চলে আসে। পাশাপাশি নানা ধরনের কাগজপত্র চাওয়া হয়, ফলে এসব আইনি জটিলতায় ঋণ পাওয়া হয় না। বাধ্য হয়ে উচ্চসুদে বিভিন্ন বেসরকারি এনজিও থেকে নিতে হয় ঋণ। রোববার (২৭ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক সেমিনারে এসব কথা বলেন এ খাত বিশ্লেষকরা। এসময় তারা সহজ শর্তে ট্রেড লাইসেন্স দেওয়া, জামানতবিহীন ঋণ প্রদানের ব্যবস্থার দাবি জানান। ‘সিএমএসএমই উদ্যোক্তাদের ঋণ সহজীকরণ ও বিকল্প অর্থায়ন’ শীর্ষক সেমিনারটি আয়োজন করে এসএমই ফাউন্ডেশন। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, নারীদের বিশেষ করে গ্রামীণ নারীদের যারা ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসা করেন তাদের ঋণ পেতে বেশ কাঠখড় পোড়াতে হয়। নানা আইনের কারণে তাদের ঋণ পেতে দেরি হয়। এরমধ্যে অন্যতম একটি বিষয় ঋণের জামানতদার। পরিকল্পনামন্ত্রী আরও বলেন, সরকারকেই তাদের ঋণের জামানতদার হওয়া উচিত। এজন্য বাংলাদেশ ব্যাংককে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। এসব নিয়মের বেড়াজাল ভাঙতে হবে।

ট্রেড লাইসেন্সকে ভয়ানক উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ট্রেড লাইসেন্স একটি ভয়ানক বিষয়। বছরের পর বছর লেগে যায় একটি ট্রেড লাইসেন্স পেতে। তার থেকে আরেকটি বড় সমস্যা লাইসেন্স নবায়ন, এসবের কারণে অনেকেই ব্যবসার ভালো পরিবেশ পাচ্ছে না। সেমিনারে বক্তারা বলেন, আমাদের ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে। এই খাত অপার সম্বাবনাময়ী খাত, তবে তার জন্য বিনিয়োগ করতে হবে। তবে এই খাতে নারীদের বেশি অগ্রাধিকার দেওয়ার কথা বলেন বক্তারা। এর পাশাপাশি ব্যাংকিং নীতিমালা প্রণয়নের দাবিও জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।