শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

বিওয়াচ ডেক্স: কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্র কুঠিবাড়ীর উন্নয়নে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর


Published: 2017-03-10 19:45:05 BdST, Updated: 2024-06-14 21:24:16 BdST

বিওয়াচ ডেক্স: কুষ্টিয়ায় রবীন্দ্র কুঠিবাড়ীর উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১টায় কুঠিবাড়ীর ঐতিহাসিক বকুলতলায় আনুষ্ঠানিকভাবে ১৮ কোটি ১৭ লাখ টাকার এই আর্থিক চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর ও সংস্কৃতি সচিব ইব্রাহিম হোসেন খান। ভারতের পক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রিংলা এবং বাংলাদেশের পক্ষে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব কাজী শফিকুল আজমের মধ্যে এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের প্রত্নতত্ত্ব বিভাগ এই প্রকল্পের বাস্তবায়ন করবে।

মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর জানান, ভারতের রাষ্ট্রপ্রতি প্রণব মুখোপাধ্যায় কুঠিবাড়িতে ভ্রমণ করার সময় এর উন্নয়নে সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছিলেন। সেই সূত্র ধরেই ভারতের এই সহযোগিতা। চুক্তি অনুযায়ী কুঠিবাড়ীতে ভারতের আর্থিক সহযোগিতায় প্রকল্পের মধ্যে একটি গ্রন্থাগার, গবেষণাগার, বিশ্রামাগার নির্মিত হবে। এই প্রকল্পে একটি পর্যটনকেন্দ্রে যেসব সুবিধা থাকে তার সবকিছুই থাকবে। 
এ ছাড়া মন্ত্রী বলেন, কুষ্টিয়ার যেসব সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য রয়েছে, সবই সমান গুরুত্ব দিয়ে রক্ষণাবেক্ষণ করা হবে। 

এদিকে, শিলাইদহ কুঠিবাড়ীতে আসতে পেরে খুবই আনন্দিত বলে উল্লেখ করে ভারতের রাষ্ট্রদূত হর্ষবর্ধন শ্রিংলা সাংবাদিকদের বলেন, ভারত বাংলাদেশের মধ্যে সাংস্কৃতিক মিল রয়েছে। এই সম্পর্কের কেন্দ্রবিন্দু কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। দুই দেশের জাতীয় সংগীত তাঁর লেখা। সবাই তাঁর প্রতি আগ্রহী। কুঠিবাড়ীর উন্নয়নে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। তিনি বলেন, ‘আপনাদের স্বপ্ন আমাদেরও স্বপ্ন। সুন্দর পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে সব ধরনের সুযোগ সুবিধা থাকবে এই কমপ্লেক্সে। ভিসা সুবিধা আরো সহজ করে দুই দেশের পর্যটকদের সুবিধা দেওয়া হচ্ছে।’

এ সময় কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার মেহেদী হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুজিবুল ফেরদৌস উপস্থিত ছিলেন। এর আগে চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারযোগে মন্ত্রী ও ভারতের রাষ্ট্রদূত কুষ্টিয়া পৌঁছান। এরপর মন্ত্রীকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়। এনটিভি

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।